মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

গ্রাম পুলিশের দায়িত্ত্ব

গ্রাম পুলিশের প্রত্যেক সদস্যদের যে কোন নাম বা উপাধিতে সম্বোধন করা হোক না কেন তারা স্থানীয় সরকার(ইউনিয়ন পরিষদ) অধ্যাদেশ ১৯৮৩ এর তফসিল-১ এর  ২য় অংশে বর্নিত ক্ষমতা প্রয়োগ করবেন এবং কর্তব্য পালন করবেন। গ্রাম পুলিশের ক্ষমতা প্রয়োগ করবেন এবং কর্তব্য পালন করবেন।

গ্রাম পুলিশের ক্ষমতা ও দায়িত্ব কর্তব্য নিম্নরুপ:

.       তিনি দিনে ও রাতে ইউনিয়নের পাহারা ও টহলদারী করবেন।

.        অপরাধের সংগে সংশিষ্ট সকল বিষয় অনুসন্ধান ও দমন করবেন এবং অপরাধীদের গ্রেফতার করতে সাধ্যমত পুলিশকে সহায়থা করবেন।

.       চেয়ারম্যান এবং ইউনিয়ন পরিষদকে সরকারী দায়িত্ব পালনে সহায়থা করবেন।

.        অন্য নির্দেশ না থাকলে প্রতি পনর দিন অন্তর এলাকার অবস্থা সম্পর্কে সংশিষ্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অবহিত করবেন।

.        ইউনিয়নের খারাপ চরিত্রের লোকদের গতিবিধি লক্ষ করবেন এবং মাঝে মাঝে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অবহিত করবেন। পার্শ্ববর্তী এলকা হতে অগত কোন সন্দেহজনক ব্যাক্তির উপস্থিতি সম্পর্কে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অবহিত করবেন।

.        থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে সে সকল বিষয় সম্পর্কে অবহিত  করবেন,যা বিরোধ,দাংগা-হাংগামা বা তুমুল কলহ সৃস্টি করতে এবং জনগনের শান্তি বিঘ্নিত করতে পারে।

.       জন্ম মৃত্যু  রেজিষ্টার সংরক্ষন এবং এলাকার সব জন্ম ও মৃত্যু সম্পর্কে ইউনিয়ন পরিষদকে অবহিত করবেন।

.       মানুষ বা পশু বা ফসলের কোন মহামারী বা সংক্রামক রোগ বা পোকার আক্রমন ব্যাপকা আকারে দেখা দিলে তৎক্ষনাৎ ইউনিয়ন পরিষদকে এ সম্পর্কে অবহিত করবেন।

.       সরকারী কাজের উদ্যেশ্যে যে কোন স্থানীয় তথ্য সরবরাহ করবেন।

 

এছাড়া ও গ্রাম পুলিশ আর কিছু গুরুত্বপূর্ন দায়িত্ব পালন করে থাকেন যেমন- এলকার কোন অস্বাভাবিক মৃত্যু হলে বা মার্ডার হলে লাশ পাহারা দেয়া এবং লাশ  থানায় পৌঁছানো পর্যন্ত সংগে থাকা। থানার পুলিশ এলাকায় আসলে তাদের  সর্বক্ষনের সাথী হওয়া। সরকারী কোন উচু পর্যায়ের  কর্মকর্তা এলাক পরিদর্শনে এলে  তাঁকে সার্বিক সাহার্য্য করা। গ্রামপুলিশগন বর্তমানে  থানা পুলিশ ও ইউনিয়ন পরিষদের যৌথ নিয়ন্ত্রনে কাজ করে। প্রতি সপ্তাহে তাদের থানায় এবং ইউনিয়ন পরিষদে হাজিরা দিতে হ্য়। গ্রাম আদালতের বিচারকালে তাদের উপস্থিত থাকতে হয়।